Home / ময়মনসিংহ / বিনামূল্যে সবজির হাট ময়মনসিংহে

বিনামূল্যে সবজির হাট ময়মনসিংহে

শুধু করোনা সচেতনতা মেনে এই হাটে এলেই বিনামূল্যে মিলবে প্রয়োজন মতো তাজা সবজি। সুসজ্জিত সবজি হাট। তবে এই হাটে সবজি কিনতে টাকা লাগে না।

এমনই একটি হাট বসেছে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ি উত্তরবনগাঁও গ্রামের রেলক্রসিং সংলগ্ন এলাকায়। পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে বিনামূল্যে একটি হাট বসিয়েছে ‘মুক্তির বন্ধন ফাউন্ডেশন’ নামে একটি সংগঠন।

শনিবার প্রথম রমজানে এই বিনামূল্যের হাটটি বিকাল থেকে চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত। রমজান মাস চলাকাল প্রতি সপ্তাহে তিন দিন এই হাটের চালু থাকবে।

করোনা প্রতিরোধক স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বেচ্ছাসেবকরা হাটটি পরিচালনা করছেন। করোনায় রোজগারহীন অসহায় পরিবারগুলোর মুখে খাবার তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে বিনামূল্যে সবজি হাটের আয়োজন করে এ সংগঠনটি।

রোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে খাদ্য সংকটে পড়া দরিদ্র ও অসহায় পরিবারগুলোকে বিনামূল্যে সবজিসহ সেহরি ও ইফতারের খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়।

শনিবার বিকালে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন আনুষ্ঠানিকভাবে বিনামূল্যের হাট (ফ্রী বাজার) কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে সামিয়ানা টানিয়ে বিনামূল্যের হাটে আলু, বেগুন, টমেটো, মিষ্টি কুমড়া, লাউ, ঢেঁড়স, শশা, মুড়ি, খেজুর সাজিয়ে রাখা হয়। যেসব দরিদ্র ও অসহায় মানুষের খাবার প্রয়োজন, তারা বিনামূল্যের এই হাটের প্রবেশ মুখে জীবাণুনাশক দিয়ে হাত ধুয়ে বাজারে প্রবেশ করছেন। এরপর সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে লাইনে দাঁড়িয়ে যে যার প্রয়োজনমতো খাবার সংগ্রহ করে বাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন।

প্রথমদিনে হাটে শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে তাদের পছন্দমতো সবজি ও ইফতারসামগ্রী সংগ্রহ করেন।

মুক্তির বন্ধন ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর আজহারুল ইসলাম পলাশ বলেন, ‘বিত্তবানদের অনুদান ও নিজস্ব অর্থায়নে ‘ফ্রি বাজার’ কার্যক্রমটি চালু করা হয়েছে। নিম্ন আয়ের মানুষ এখানে বিনামূল্যে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিস নিতে পারছে।’

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন বলেন, হাটের প্রথম দিন শনিবার ক্রেতার সুশৃঙ্খলভাবে ইচ্ছে মতো নিজেদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিতে পেরেছেন। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে মুক্তির বন্ধন ফাউন্ডেশন নামে সংগঠনটির উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন এ উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: