Home / আর্ন্তজাতিক / বৃটিশ পুলিশ ৪৫ হাজার জরিমানার টিকেট দিয়েছে কোভিড বিধি লংঘন করায়

বৃটিশ পুলিশ ৪৫ হাজার জরিমানার টিকেট দিয়েছে কোভিড বিধি লংঘন করায়

সীমিত সংখ্যক মানুষ নিয়ম না মেনে গোটা জাতিকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে বৃটেনের হোম সেক্রেটারি প্রীতি প্যাটেল ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেছেন। এদের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে। ফলে দেশ জুড়ে পুলিশ প্রায় ৪৫ হাজার জরিমানার টিকেট পাঠিয়েছে। প্রীতি প্যাটেল বৃটিশ জনগনকে তাদের ভূমিকা পালন তথা ভাইরাস ঠেকাতে দায়িত্বপূর্ণ আচরণ করার জন্য আবারো অনুরোধ জানিয়েছেন।

জাতীয় পুলিশ চিফস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মার্টিন হিউইট প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেছেন, কর্মকর্তারা জনসাধারণকে লকডাউন নিয়ম মানার ক্ষেত্রে কোন রকম শৈথল্য প্রদর্শন করছেন না। কোভিড থেকে জীবন বাঁচাতে এবং এনএইচএস রক্ষা করতে বিধিনিয়ম মেনে চলতে হবে। মেট চিফ ক্রেসিদা ডিক বলেছেন, কেউ বিধি অনুসরণ করবে না, তা মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়। লকডাউন আইন ভাঙার জন্য দ্রুত জরিমানা করতে হবে।

এ ব্যাপারে  কঠোর সতর্কতা জারি করার পর গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০০ স্থানে জরিমানা করা হয়েছে।

বৃটেনে গতকাল ছিল দ্বিতীয় ভয়াবহতম দিন। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১২৪৩ জন। সারা দেশে জুড়ে বিপর্যয় অব্যাহত থাকায় এই রোগে মারা যাওয়া মোট মানুষের সংখ্যা এখন ৮৩,২০৩ জনে দাঁড়িয়েছে। শুক্রবার সবচেয়ে মারাত্মকতম দিনটিতে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ১৩২৫জন। মহামারী শুরু হওয়ার পর গতকালের এটি হচ্ছে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা। আর এখন পর্যন্ত চলতি সপ্তাহ মহামারীর সবচেয়ে ভয়াবহ সপ্তাহ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত সাত দিনে গড়ে প্রতিদিনের মৃত্যু সংখ্যা ৯৩১ জন। গত বছরের গোড়ার দিকে কোভিডের প্রথম তরঙ্গ চলাকালীন ৬ এপ্রিল থেকে ১২ এপ্রিলের মধ্যে সর্বোচ্চ সাত দিনের গড় ছিল ৯২০ জন।

করোনা ভাইরাসের নতুন রূপটি আরও বেশি ঝুঁকি তৈরি করেছে কারণ এটি অনেক বেশি সংক্রমণযোগ্য। এটি দ্রুত পর্যালোচনা হচ্ছে এবং আরো কড়া বিধিনিষেধ দরকার কিনা তা নিয়ে সরকারের মধ্যে কথোপকথন চলছে। হাসপাতালে আসন সংকুলান না হলে কোভিড রোগীদের আইল অফ হোয়াইটে সরিয়ে নেয়ার প্রয়োজন হতে পারে। এ জন্য আর্মি হেলিকপ্টারগুলি প্রস্তুত রয়েছে। পরিস্তিতি মোকাবেলায় সরকার ব্যাপক ভাবে কোভিড ভ্যাকসিন প্রদানের প্রয়াস চালিয়েছে। এই সপ্তাহে মন্ত্রী পরিষদ কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে হোম সেক্রেটারি বলেছেন, ইতিমধ্যে ২.৪ মিলিয়ন মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।

অযৌক্তিক অজুহাত অগ্রহনযোগ্য উল্লেখ করে মার্টিন হিউইট হার্টফোর্ড শায়ারের একটি নৌকো পার্টির উদাহরণ দিয়ে বলেছেন, তারা ৩০ পাউন্ড করে টিকেট নিয়ে এবং বিভিন্ন বাসার লোকেরা মিনিবাসে করে চেলতেনহাম থেকে ওয়েলস ভ্রমনে বেয়েছিলেন। সারেতে একটি পার্টির আয়োজকরা দাবি করেছেন, এটি একটি ব্যবসায়িক ইভেন্ট। তাদের এধরণের আচরণের জন্য অবশ্যই জরিমানার মুখোমিুখি হতে হবে।

হিউট স্বীকার করেছেন, ডার্বিশায়ার পুলিশ অফিসাররা দুজন মহিলাকে বাড়ি থেকে পাঁচ মাইল দূরে হাঁটার জন্য জরিমানা করার বিষয়টি ভুল হয়েছে। পুলিশ স্বাস্থ্য বিধি সম্পর্কিত “অত্যন্ত অস্বাভাবিক” পরিস্থিতি নিয়ে কাজ করছে। হাজার হাজার ঘটনার মধ্যে দ্রুত পরিবর্তনশীল বিধি নিয়মের ক্ষেত্রে সামান্য ব্যত্যয় ঘটতে পারে। সাথে সাথে তথ্য সরবরাহ ও ভুল সংশোধনের প্রক্রিয়া অব্যাহত আছে। ডার্বিশায়ার পুলিশ কর্তৃক জরিমানা ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বাইসাইকেল চালিয়ে সাত মাইল দূরে যাওয়ার বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী কোনো আইন ভঙ্গ করেননি। লকডাউনের নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন ঘরের বাইরে নির্দিষ্ট এলাকায়  শরীর চর্চা অনুমোদিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: