ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা যুবলীগ নেতার মারধর অপমানে

46

ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা জমির উদ্দীন মাত্র ১ হাজার টাকার জন্য প্রকাশ্যে আব্দুল গফুর (৪০) নামে এক মাছ ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে সেই ভিডিও মোবাইলে ধারণ করেছেন ।এ অপমান সহ্য করতে না পেরে গ্যাস ট্যাবলেট (ইঁদুর মারার ওষুধ) খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন মাছ ব্যবসায়ী গফুর। বৃহস্পতিবার সকাল স্থানীয় পৌকানপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আবদুুল গফুরের স্ত্রী রোজিনা বেগম জানান, বৃহস্পতিবার সকালে পাশের গ্রামের পয়জার আলীর ছেলে যুবলীগ নেতা জমির উদ্দীন টাকা চাইতে বাড়িতে আসেন। তাকে না পেয়ে বাড়ি থেকে রেগে বেরিয়ে যান। এরপর স্থানীয় বাজারে দেখা হলে লোকজনের সামনে তাকে মারপিট করে।

প্রতিবেশী নাসিরুল ইসলাম জানান, আমরা গফুরকে বাঁচানোর জন্য প্রথমে বালিয়াডাঙ্গী হাসপাতাল ও পরে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যাই। ডাক্তার বলেছেন, গ্যাস ট্যাবলেট খাওয়া রোগীকে বাঁচানো সম্ভব না।

পরে বাড়িতে নেয়ার পর দুপুর ৩টায় তিনি মারা যান।

হাসপাতাল থেকে ফেরত আনার পর মৃত্যুর আগে আবদুল গফুর একটি ভিডিওতে বলে গেছেন, টাকার জন্য প্রকাশ্যে গালিগালাজ ও মারপিটের অপমান সহ্য করতে না পেরে আমি গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করছি।

এ ব্যাপারে যুবলীগ নেতা জমির উদ্দীনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান জানান, আমাকে মোবাইলে ঘটনার বিষয়ে জানিয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানোর ব্যবস্থা চলছে।