ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর দ্বিতীয় দফায় গণভোটের দাবি নাকচ

5

cameron-reisgnation20160627141010-700x336

ঢাকা : দেশটির প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর ব্রিটেনে দ্বিতীয় দফায় গণভোট আয়োজনের জোরালো দাবি নাকচ করে দিয়েছেন ।
ক্যামেরনের একজন মুখপাত্র বলেছেন, দ্বিতীয় গণভোট অনুষ্ঠানের কোনো পরিকল্পনা নেই।
এর আগে, ব্রেক্সিট ইস্যুতে বৃহস্পতিবারের গণভোটের ফলাফলে দেখা যায়, ইইউতে থাকার পক্ষে ও বিপক্ষে ভোটের পরিমাণ প্রায় কাছাকাছি পর্যায়ে ছিল। গণভোটে ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে ৫২ শতাংশ এবং থেকে যাওয়ার পক্ষে ৪৮ শতাংশ ভোট পড়ে। প্রতিষ্ঠার ৬০ বছরেরও বেশি সময় পর এই প্রথম কোনো দেশ ইইউ ত্যাগ করলো।
এরপর ব্রেক্সিটের বিপক্ষের লোকজন দেশটিতে ফের গণভোটের দাবিতে অনলাইন পিটিশনে সাক্ষর কর্মসূচি শুরু করে। গণভোট আয়োজনের তীব্র দাবির মুখে প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন দ্বিতীয় দফায় ভোট অনুষ্ঠানের দাবি নাকচ করে দিলেন।
বেক্সিট ভোটের পর সোমবার ক্যাবিনেটের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন ক্যামেরন। বৈঠকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বিচ্ছেদের আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য সরকারের একটি বিশেষ ইউনিট গঠনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী।
তবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার জন্য ব্রিটেনে আর্টিকেল-৫০ কার্যকর করতে হবে। এতে ইইউর সঙ্গে ব্রিটেনের আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদের জন্য অন্তত দুই বছর পর্যন্ত সময়ের প্রয়োজন হতে পারে।
ক্যামেরন বলেছেন, এটি হবে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর কাজ, যিনি আগামী অক্টোবরে কনজারভেটিভ দলের অধীনে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসবেন। ইইউ থেকে ব্রিটেনের বিচ্ছেদ নিয়ে আলোচনার জন্য জার্মানি, ফ্রান্স ও ইতালির নেতারা সোমবার বার্লিনে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে।
ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী জর্জ ওসবোর্ন শেযার বাজার শান্ত রাখার চেষ্টা চলছে বলে একটি বিবৃতি দিয়েছেন। বেক্সিট ভোট-পরবর্তী ব্রিটেনের শেয়ারবাজারে ব্যাপক ধস শুরু হয়েছে। গত ৩১ বছরের ইতিহাসে পাউন্ডের মূল্য সোমবার সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমেছে বলে গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
এদিকে, জার্মান সরকারের মুখপাত্র স্টেফান সেইবার্ট বলেছেন, ব্রিটেনের অনুরোধে আর্টিকেল-৫০ অনুযায়ী ইউরোপিয়ান কাউন্সিল বিচ্ছেদ চুক্তির জন্য নির্দেশনা দেবে। তিনি বলেন, ‘একটি বিষয় পরিষ্কার : ব্রিটেনের অনুরোধের আগে সেখানে প্রস্থানের বিষয়ে কোনো ধরনের অনানুষ্ঠানিক আলোচনা হবে না’।