মানবতাবিরোধী অপরাধে মীর কাশেম আলীর মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল

22

l_humanity_1971বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের গুরুত্বপূর্ণ নেতা মীর কাশেম আলীর মৃত্যুদণ্ডের আদেশ বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চ আজ এই রায়টি দেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।রায়ের নিন্দা জানিয়ে এর প্রতিবাদে বুধবার ৯ই মার্চ দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ। তাদের ওয়েবসাইটে এক বিবৃতি হরতালের ঘোষণা দেয় জামায়াত।

জামায়াত নেতা মীর কাশেম আলীর মামলায় ২০১৪ সালের নভেম্বরে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছিলো। এরপর আপিল আবেদন করেন মীর কাশেম আলী। রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামীপক্ষ উভয় পক্ষের বক্তব্য শেষে আপিল রায় ঘোষণার তারিখ প্রথমে ২রা মার্চ নির্ধারণ করেন আদালত। পরে তা ৮ই মার্চ পুন:নির্ধারণ করা হয়।

১৯৭১ সালে চট্টগ্রামে অপহরণ করে হত্যার দু’টি অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল তাকে এই মৃত্যুদণ্ড দেয়।

তাঁর বিরুদ্ধে আনা ১৪টি অভিযোগের ১০টি প্রমাণিত হয়েছে।

জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা মীর কাশেম আলীর বিরুদ্ধে আনা ১৪টি অভিযোগই বন্দরনগরী চট্টগ্রামে নির্যাতন কেন্দ্রকে ঘিরে।

কিশোর মুক্তিযোদ্ধা জসিমসহ ছয়জনকে অপহরণের পর নির্যাতন কেন্দ্রে আটকিয়ে রেখে হত্যা করে তাদের মৃতদেহ নদীতে ফেলে দেয়া হয়েছে। এই অভিযোগে তিন জন বিচারকের সমন্বয়ে আদালত সর্বসম্মতিক্রমে মৃত্যুদণ্ড দেয়।

এই মৃত্যুদণ্ডের আদেশ বহাল রেখেছেন আদালত। মীর কাশেম আলীর আপিল রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্ট এলাকা ঘিরে কয়েকস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।