Home / আর্ন্তজাতিক / মানুষ ক্লান্ত হলেও করোনা হয়নি: ডব্লিউএইচও প্রধান

মানুষ ক্লান্ত হলেও করোনা হয়নি: ডব্লিউএইচও প্রধান

করোনাভাইরাস করোনা মহামারির সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে মানুষ ক্লান্ত হলেও এখনো ক্লান্ত হয়নি । তাই ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত সবাইকে সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রেইয়েসুস। বলেছেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারিতে মানুষ ক্লান্ত হয়ে উঠেছে। কিন্তু মানুষকে আরও সতর্ক থাকতে হবে। বিশ্ব একটি ভ্যাকসিনের অপেক্ষা করছে, এটি না আসা পর্যন্ত সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত।’

বৃহস্পতিবার প্যারিস পিস ফোরামের এক বৈঠকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই প্রধান বলেন, ‘আমরা করোনাভাইরাসের কারণে ক্লান্ত হয়ে থাকতে পারি, কিন্তু করোনা ক্লান্ত হয় না। ইউরোপীয় দেশগুলো এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করলেও ভাইরাসটির উল্লেখযোগ্য তেমন পরিবর্তন ঘটেনি। এমনকি এটি ঠেকানোর কোনো ব্যবস্থাও নেই।’

করোনাভাইরাসের বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন আশা দেখালেও সেগুলো চূড়ান্ত কার্যকর প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত ঝুঁকির বিষয়টি উড়িয়ে দেয়া যায় না বলেও সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি।

সোমবার মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানি ফাইজার এবং জার্মান জৈবপ্রযুক্তি কোম্পানি বায়োএনটেক বলছে, তাদের তৈরি ভ্যাকসিন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ৯০ শতাংশ কার্যকর। ভ্যাকসিনের বৃহৎ পরিসরের এবং শেষ ধাপের পরীক্ষার প্রাথমিক ফলাফলে এই কার্যকারিতার প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে ফাইজার ও বায়োএনটেক।

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সুষ্ঠু ও সমবণ্টনের কথা স্মরণ করিয়ে টেড্রোস আধানম বলেন, ‘একটি ভ্যাকসিন অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে। কিন্তু আমরা একটি ভ্যাকসিনের জন্য অপেক্ষা এবং আমাদের সব ডিম একটি ঝুড়িতে ফেলতে পারি না।’

গেল বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহানে করোনাভাইরাসের উৎপত্তি হওয়ার পর বিশ্বের দুই শতাধিক দেশে এটি ছড়িয়ে পড়েছে। করোনায় বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত ১২ লাখ ৯১ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কাড়লেও আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ কোটি ২৫ লাখের বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: