Home / আর্ন্তজাতিক / মার্কিন বিশেষজ্ঞদের সতর্কতা করোনা নিয়ে

মার্কিন বিশেষজ্ঞদের সতর্কতা করোনা নিয়ে

মার্কিন আইন প্রণেতাদের সতর্ক করেছেন শীর্ষ সংক্রামক বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসি যুক্তরাষ্ট্রের কিছু কিছু রাজ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের বিষয়ে । তার নেতৃত্বে স্বাস্বথ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের একটি প্যানেল বলেছে, পরবর্তী কয়েকটি দিন নতুন করে করোনা বিস্তার রোধ করা হয়ে উঠবে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু রাজ্যে করোনা সংক্রমণের হার দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আইন প্রণেতাদের সামনে সাক্ষ্য দেয়ার সময় এই প্যানেলের শীর্ষ চারজন বিশেষজ্ঞ বলেছেন, তারা কখনোই করোনা পরীক্ষা কমিয়ে আনা বা ধীরগতির করতে পরামর্শ দেননি প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।
উল্লেখ্য, গত সপ্তাহান্তে ওকলাহোমায় নির্বাচনী এক র‌্যালিতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, তিনি তার টিমকে করোনা পরীক্ষা কমিয়ে আনার নির্দেশ দিয়েছেন, যাতে করোনায় আক্রান্তদের সংখ্য সরকারিভাবে কমে যায়। এর প্রেক্ষিতে ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব এলার্জি এন্ড ইনফেকশিয়াস ডিজিজেস-এর পরিচালক ড. অ্যান্থনি ফাউসি মার্কিন কংগ্রেশনাল কমিটির কাছে বলেন, আমার জানামতে, আমাদের কেউই করোনা পরীক্ষা কমিয়ে আনার পরামর্শ দিই নি। তিনি বলেন, বাস্তবে আমাদেরকে অধিক হারে পরীক্ষা করতে হবে।

এই শুনানিতে তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন, ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন এবং ডিপার্টমেন্ট অব হেলথ এন্ড হিউম্যান সার্ভিসেস-এর প্রতিনিধিরা। তারাও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের মন্তব্যে আপত্তি তোলেন। বলেন, তারাও করোনা পরীক্ষা কমিয়ে আনার পরামর্শ দেন নি।
যুক্তরাষ্ট্রের ডায়াগনস্টিক সক্ষমতা তদারকি করেন স্বাস্থ্য বিভাগের অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি ব্রেট গিরোইর। তিনি আইন প্রণেতাদের বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র শরত নাগাদ প্রতি মাসে ৪ কোটি থেকে ৫ কোটি মানুষের পরীক্ষা করতে সক্ষম হবে।
ওদিকে হোয়াইট হাউজ বলেছে, করোনা ভাইরাস পরীক্ষা কমিয়ে আনা নিয়ে রসিকতা করে প্রেসিডেন্ট অমন মন্তব্য করেছেন। কিন্তু মঙ্গলবার হোয়াইট হাউজের বক্তব্যের পাল্টা বক্তব্য দিলেন। তিনি সাংবাদিকদের বললেন, আই ডোন্ট কিড। অর্থাৎ আমি রসিকতা করি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: