মিয়ানমারের নতুন প্রেসিডেন্ট থিন কিউ

16

myanmer_6992এলার্ট নিউজ প্রতিনিধি চট্টগ্রাম :  মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন সু চির ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমো্ক্রেসির (এনএলডি) প্রার্থী থিন কিয়াও। এর মাধ্যমে দেশটিতে ৫০ বছর ধরে চলা সামরিক শাসনের অবসান হলো।

নিজ দলের আরেক প্রার্থী এবং সেনা সমর্থিত প্রার্থীকে পেছনে ফেলে সংসদ সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত হলেন থিন কিউ। তবে গণতন্ত্রের নেত্রী সু চি আগেই বলেছেন- তিনি প্রেসিডেন্টের উপরে থাকবেন।
উল্লেখ্য, মিয়ানমারের সংবিধান অনুযায়ী বিদেশি নাগরিককে বিয়ে করায় এবং তাঁর দুই সন্তান বিদেশি নাগরিক হওয়ায় দেশটির প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন না সু চি।
প্রেসিডেন্ট পদে তিন প্রার্থীর মধ্য থেকে আজ ভোটাভুটির মাধ্যমে থিন কিয়াওকে নির্বাচিত করলেন পার্লামেন্টের নির্বাচিত সদস্যরা। বাকি দুই প্রার্থী হবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট। বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট পদে তিন প্রার্থীর নাম ঘোষণা হয়। এরমধ্যে এনএলডির দুইজন ও সামরিক বাহিনীর একজন রয়েছেন।
গত নভেম্বরে বিপুল ভোটে বিজয় লাভের প্রায় চার মাস পর গত সপ্তাহে সু চির দল এনএলডি পক্ষ থেকে নোবেলজয়ী এই নেত্রীর ঘনিষ্ঠ সহযোগী বলে পরিচিত থিন কিউকে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়। ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন দেওয়া হয় হেনরি ভ্যান থিওকে।
অন্যদিকে পার্লামেন্টের এক-চতুর্থাংশ আসনে প্রতিনিধিত্বকারী সেনাবাহিনী ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন দিয়েছে তৃতীয় একজন প্রার্থীকে। গত বছরের নভেম্বরে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে জয়ী হন নোবেল জয়ী অং সান সু চির দল এনএলডি। –