Home / খবর / মৃত্যু ৩০০ ছাড়াল, শনাক্ত ২১ হাজার ছুঁই ছুঁই করোনায়

মৃত্যু ৩০০ ছাড়াল, শনাক্ত ২১ হাজার ছুঁই ছুঁই করোনায়

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩১৪ জনে। বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা তিনশোর ঘর পার হলো। এছাড়া নতুন শনাক্তের তালিকায় যুক্ত হয়েছেন আরও ৯৩০ জন। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২০ হাজার ৯৯৫ জনে। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ২৩৫জন।

শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে যুক্ত হয়ে করোনাভাইরাস সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরেন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা ও ঢাকার বাইরের ল্যাবে মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল ৬ হাজার ৫০১টি। এর মধ্যে ৬ হাজার ৭৮২টি পরীক্ষা করে ৯৩০ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২০ হাজার ৯৯৫ জনে। নাসিমা জানান, এ কয়দিন ৪১টি ল্যাবের তথ্য জানালেও আজ ৩৩টি ল্যাবের তথ্য জানানো হয়েছে। আটটি ল্যাবের তথ্য ব্রিফিং করার সময় পর্যন্ত হাতে আসেনি।

এছাড়া এই সময়ে মৃত্যু বরণ করেছেন ১৬ জন। এরা সবার পুরুষ। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২জন মারা গেছেন, যার সাতজনই ঢাকা সিটির বাসিন্দা। এছাড়া চট্টগ্রাম বিভাগে ২জন ও রংপুর বিভাগে ২জন। মৃতরা বয়স বিবেচনায় ৭১-৮০ বছরে মধ্যে ১ জন, ৬১-৭০বছরের মধ্যে ৩ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৬জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৫জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ১জন।

তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন সুস্থ হয়েছেন ২৩৫জন। এ নিয়ে মোট ৪ হাজার ১১৭জন সুস্থ হয়েছেন।

ব্রিফিংয়ে করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ দিয়ে অধ্যাপক নাসিমা বলেন, তরল খাবার, কুসুম গরম পানি ও আদা চা পান করবেন। সম্ভব হলে মৌসুমী ফল খাবেন ও ফুসফুসের ব্যায়াম করবেন। এ সময় ধূমপান ত্যাগ করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, এটি ফুসফুসের কার্যকারীতা নষ্ট করে দেয়।

চীনের উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা বাংলাদেশে প্রথম শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। সেদিন তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্তের কথা জানিয়েছিল আইইডিসিআর।

এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় প্রথম মৃত্যুর খবর আসে। দিন দিন করোনা রোগী শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার।

ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ২৬ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় সব সরকারি-বেসরকারি অফিস। কয়েক দফা বাড়ানো হয় সেই ছুটি, যা এখনও অব্যাহত আছে। ৭ম দফায় বাড়ানো ছুটি চলবে ৩০ মে পর্যন্ত।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার তথ্যানুযায়ী শনিবার সকাল পর্যন্ত করোনায় বিশ্বব্যাপী নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৮ হাজার ৬৪৫ জনে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৪৬ লাখ ২৮ হাজার ৩৫৬ জন। অপরদিকে ১৭ লাখ ৫৮ হাজার ৩৯ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: