Home / অর্থ-বাণিজ্য / যেসব কোম্পানি করোনার মধ্যেও ফুলেফেঁপে উঠছে

যেসব কোম্পানি করোনার মধ্যেও ফুলেফেঁপে উঠছে

অ্যামাজনের মতো কোম্পানির পোয়াবারো করোনা সংকটের কারণে গোটা বিশ্বের অর্থনীতি যখন প্রায় স্তব্ধ হয়ে গেছে, কিছু কোম্পানির কার্যকলাপ ও ব্যবসা ফুলেফেঁপে উঠছে৷ লকডাউনের ফলে ঘরবন্দি মানুষ একঘেয়েমি কাটাতে ইন্টারনেটে একের পর এক চলচ্চিত্র ও ধারাবাহিক দেখে চলেছেন৷ তাই নেটফ্লিক্স ও ৷

মানুষ আতঙ্কে বিপুল পরিমাণ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনার ফলে অনেক সুপারমার্কেটেও বিক্রি বেড়ে গেছে৷ এছাড়া খাদ্য ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কিনতে অনেকেই বাইরে যেতে না পারায় হোম ডেলিভারি সার্ভিসের চাহিদাও বাড়ছে৷ ফলে এমন সব কোম্পানির মুনাফাও বাড়ছে৷

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারে এই দুই নেটফ্লিক্স ও অ্যামাজন কোম্পানির শেয়ার রেকর্ড মাত্রা ছুঁয়েছে৷ ওয়ালমার্ট কোম্পানিও ভালো ফল করেছে৷ বোয়িংয়ের মতো অন্যান্য কোম্পানি করোনা সংকটে বিপর্যস্ত হলেও অ্যামাজন ও নেটফ্লিক্সের মতো কোম্পানির দৌলতে ওয়াল স্ট্রিট কিছুটা সাফল্যের মুখ দেখেছে৷

যেসব কোম্পানি করোনাকালেও সাফল্যের শীর্ষে রয়েছেন সেগুলো হলো-

নেটফ্লিক্স

করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে লোকজনকে ঘরে অবস্থানের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে৷ এই সময় নেটফ্লিক্সের মতো অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সেবা মানুষের সঙ্গী হয়ে উঠছে৷ ফলে বিশ্ববাজারেও নেটফ্লিক্সের শক্তিশালী অবস্থান দেখা গেছে।

ঘরে বসে শরীরচর্চা

করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরে থাকার সময়টা শরীরচর্চা করেও কাটাচ্ছেন অনেকে৷ ফলে শরীরচর্চা যন্ত্রপাতির বিক্রি যেমন বেড়েছে, তেমনি অনলাইনে বেড়েছে দর্শক৷ ফলে এ ব্যবসায় জড়িতদের এখন বেশ রমরমা অবস্থা৷

করোনা ভাইরাসে কোটিপতি

যুক্তরাষ্ট্রের বায়োটেকনোলজিক্যাল কোম্পানি ‘মর্ডানা’ করোনা ভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের দাবি করেছে৷ তাদের টিকা পরীক্ষাগারে মানবদেহে পরীক্ষা করা হবে৷ এ খবর কোম্পানিটির শেয়ারের দাম কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে৷

জুম ভিডিও

অনলাইনে টেলিকনফারেন্সের অ্যাপ ‘জুম ভিডিও’র শেয়ারের দাম ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৫০ শতাংশ বেড়েছে৷ করোনা ভাইরাস আতঙ্কে ভ্রমণ কমিয়ে মানুষ এভাবেই এখন যোগাযোগ রক্ষা করছে৷

সুপার শপ

করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পর শুধু মাস্ক বা জীবাণুনাশক পণ্য কিনতেই হুড়াহুড়ি নয় বরং ইউরোপ, বিশেষ করে জার্মানিতে লোকজন খাবার মজুদ করতে শুরু করেছেন৷ ফলে সুপার মার্কেটগুলোর বিক্রি হু হু করে বেড়ে গেছে৷

নিরাপত্তা পণ্য

মাস্ক, জীবাণুনাশক, স্যানেটারি ওয়াইপসের মতো পণ্যের চাহিদা এতটা বেড়ে গেছে যে কয়েক গুণ বেশি দামে বিক্রি হওয়ার পরও সব দেশে এসব পণ্যের সংকট দেখা দিয়েছে৷ এসব পণ্য উৎপাদন ও বিপণনের সঙ্গে জড়িত কোম্পানির ব্যবসা আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়ে গেছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: