রাবিতে ভর্তি পরীক্ষা দেবেন বেলায়েত ৫৫ বছর বয়সে

9

বেলায়েত শেখ উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের জেদে ৫০ বছর বয়সে নবম শ্রেণিতে ভর্তি হন । এরপর উচ্চ মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হওয়ার পর ৫৫ বছর বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি শুরু করেন। এরই মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর এবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসছেন তিনি। আগামী ২৬ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এ’ ইউনিটের প্রথম শিফটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন বেলায়েত।

জ্ঞান পিপাসু ও অদম্য ইচ্ছাশক্তির অধিকারী বেলায়েত শেখের বাড়ি গাজীপুরের শ্রীপুরে উপজেলায়। পরিবারে তার দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। বড় ছেলে ব্যবসা করছেন। ছোট ছেলে শ্রীপুর ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়ছেন। এছাড়া তিনি দৈনিক করতোয়া পত্রিকার শ্রীপুর উপজেলা প্রতিনিধি।

বেলায়েত শেখ জানান, ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চ ডিগ্রি নেওয়ার। তবে অভাবের সংসারে বাবার অসুস্থতার কারণে ১৯৮৩ সালে এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারেননি। অসুস্থ মা-বাবা ও ভাইবোনদের ভরণপোষণ করতে সংসারের হাল ধরেন তিনি। জীবন চালাতে দিনমজুর, হোটেল বয়, গেরেজের টুকিটাকি কাজ করেছেন। পরে ছোট একটি মোটর মেরামতের ওয়ার্কশপের আয় দিয়েই চলতো তার সংসার। সংসারের ঘানি টেনে এর আগে আরও দুবার এসএসসি পরীক্ষার প্রস্ততি নেন তিনি। তবে অভাবের কারণে তা দেওয়া হয়নি।

তিনি আরও জানান, নিজের ভাই-বোনদের মধ্যে কেউ সেভাবে উচ্চ শিক্ষা পায়নি। সেই আক্ষেপ থেকে পুনরায় লেখাপড়া শুরু করেন তিনি। দীর্ঘ তিন যুগ পর ২০১৯ সালে কারিগরি শাখা থেকে জিপিএ ৪.৪৩ পেয়ে এসএসসি এবং ২০২১ সালে ছোট ছেলের সঙ্গে জিপিএ ৪.৫৮ পেয়ে এইচএসসি পাশ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘শুরুতে মনে হতো আমি তরুণদের মতো নই। বিভিন্ন জায়গায় হাসির পাত্র হয়েছি। তবে আমার ইচ্ছাশক্তি কখনো দূর্বল হয়নি। ফলে কিছুদিনের মধ্যেই সব স্বাভাবিক হয়ে যাওয়ায় পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে কোন অসুবিধা হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত মাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেই। কিন্তু পাশ করতে পারিনি। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বয়সের কারণে আগে থেকেই জানিয়েছিল আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবো না।’

সাংবাদিকতা পেশায় যুক্ত থাকায় তিনি একই বিভাগে পড়াশোনার আগ্রহ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমি সংবাদিকতা পেশার সঙ্গে জড়িত তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগে সুযোগ হলে পড়তে চাই। এই বিভাগে পড়ে আমার ক্যারিয়ারকে ভালো ভাবে গড়তে চাই।’