Home / অন্যান্য / অপরাধ / রাবি ছাত্র রিমান্ডে ধর্ষণ-পর্ণগ্রাফি মামলায়

রাবি ছাত্র রিমান্ডে ধর্ষণ-পর্ণগ্রাফি মামলায়

আদালত রিমান্ডে পাঠিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে মেসে ডেকে এনে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের ঘটনায় গ্রেপ্তার একই বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মাহফুজুর রহমান সারদকে । সোমবার দুপুরে রাজশাহী মহানগর মুখ্য হাকিম আদালত-৫ এর শুনানি শেষে বিচারক সেলিম রেজা তার দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, ধর্ষণ ও তার ভিডিও ধারণের ঘটনার মামলায় মাহফুজুর রহমানের তিনদিনের রিমান্ড চেয়ে রোববার আদালতে আবেদন করা হয়েছিল। সোমবার রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। বিকেলে তাকে থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে।
মামলার বরাত দিয়ে ওসি বলেন, গত ২৪ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৮ টার দিকে রাজশাহী বিশ্ব বিদ্যালয়ের অর্থনিতি বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র মাহফুজুর সারদ (২২) তার রাবির এক ছাত্রী বান্ধবীকে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে কাজলা সাঁকপাড়া এলকায় তার মেসে এনে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এবং পূর্বপরিকল্পিতভাবে তার বন্ধু নগরীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যায়ের আইন বিভাগের ছাত্র প্লাবন সরকার, রাফসান, জয়, জীবন এবং বিশালকে দিয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে। ধর্ষণের পরে ওই ছাত্রীর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে তারা। তাদের দাবিকৃত টাকা না দিলে ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়া হবে বলেও হুমকি দিয়ে গভীর রাতে ছাত্রীকে ছেড়ে দেয় তারা। ধর্ষণের শিকার রাবি ছাত্রী বিষয়টি তার পিতা ও মাতাকে জানান।
পরে গত ২৭ জানুয়ারি দুপুরে ধর্ষণের শিকার রাবির ওই ছাত্রীর বাবা ও মাকে নিয়ে মতিহার থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে।

মামলা দায়ের করার পরেই মতিহার থানা পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে ধর্ষক রাবির অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র মাহবুবুর রহমানের ছেলে মাফুজুর রহমানকে (২১) ও তার দুই বন্ধু প্লাবন তালুকদার (২১) এবং রাজশাহী বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ছাত্র রাফসানকে (২২) গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পরে তাদের কাছে থেকে ধর্ষণের ভিডিওসহ মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this:
Skip to toolbar