Home / খবর / শ্রাবন্তী ডিভোর্সের আগেই মডেলের প্রেমে মজেছেন !

শ্রাবন্তী ডিভোর্সের আগেই মডেলের প্রেমে মজেছেন !

shrabontiবেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনায় আছেন টালিগঞ্জের জনপ্রিয় সুন্দরী নায়িকা শ্রাবন্তী ও তার স্বামী পরিচালক রাজীব । সংসারে ভাঙনের সুর বাজতেই তাদের নিয়ে নানা কানাঘুষা শুরু। মতের অমিল হওয়ায় আগামী মাসেই শ্রাবন্তী ও রাজীবের আনুষ্ঠানিক ডিভোর্স হওয়ার কথা রয়েছে।
তবে, এরইমধ্যে নতুন খবরে টলিপাড়ায় হইচই পড়ে গেছে শ্রাবন্তীকে নিয়ে। শোনা যাচ্ছে, বিচ্ছেদের আগেই নতুন মনের মানুষ জোগাড় করে ফেলেছেন শ্রাবন্তী! কিষাণ নামের এক মডেলের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন তিনি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এমনটাই দাবি করছে।
জীবনের অনেক প্রেম-ভালোবাসাকে টাটা দিয়ে ২০০৩ সালে পরিচালক রাজীবের সঙ্গে সংসারজীবনে থিতু হন মায়াবী চোখ আর ভুবন ভোলানো হাসির অধিকারী টালিগঞ্জের এ নায়িকা। তারপর তাদের ঘর আলো করে আসে একটি পুত্রসন্তান। কিন্তু সুখের সংসারে হঠাৎই দেখা দেয় ভাঙনের সুর।
শ্রাবন্তীর ঘনিষ্ঠরা বলছেন, রাজীবের সঙ্গে মতের মিল হচ্ছিল না শ্রাবন্তীর। অন্যদিকে রাজীবের ঘনিষ্ঠরা বলছেন, শ্রাবন্তীর অনিয়ন্ত্রিত জীবন-যাপন, স্বেচ্ছাচারী চলাফেরা ও আচরণের কারণে তাদের সংসারে অশান্তি নেমে এসেছে।
এক্ষেত্রে পরপুরুষের সঙ্গে সম্পর্কের অভিযোগও তুলেছেন কেউ কেউ। এদিকে বিচ্ছেদের আগেই নায়িকার নতুন প্রেমের খবরে মুখরিত টলিপাড়া। প্রকাশিত খবরে জানা যায়, টালিউডে মডেল হিসেবে পরিচিত কিষাণের সঙ্গে প্রেম করছেন এই অভিনেত্রী। সম্প্রতি তাদের দু’জনের একটি স্থিরচিত্র সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।
ছবিতে দেখা যায়, কিষাণ, শ্রাবন্তী ও তার ছেলে অবিমন্য নৈশভোজ করছেন। ক্যাপশনে কিষাণ লিখেছেন, ‘পরিবারের প্রিয় দু’জন মানুষের সঙ্গে নৈশভোজ।’ ছবিতে কিষাণ-শ্রাবন্তীকে দেখে ভক্তদের মনে যতটা না প্রশ্ন উঠেছে, তার চেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে এই ক্যাপশন নিয়ে।
কিষাণ এই ছবিটি শ্রাবন্তী ও তার ছেলে এবং তার বোন স্মিতা চ্যাটার্জিকে ট্যাগ করেন। নাম প্রকাশে নিচ্ছুক শ্রাবন্তীর ঘনিষ্ঠ একজন এ বিষয়ে বলেন, ”তারা দু’জন কিছু সময়ের জন্য একসঙ্গে বাইরে ঘুরতে গিয়েছিলেন। এর বেশি কিছু আমি বলতে পারব না।” কিছুদিন আগে গুঞ্জন উঠেছিল বিক্রম নামের এক যুবকের সঙ্গে প্রেম করছেন শ্রাবন্তী। বিক্রম শ্রাবন্তীর বোনের বন্ধু। এ প্রসঙ্গে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে শ্রাবন্তী বলেছিলেন, ”আসলে এখনো বিক্রমকে নিয়ে সে রকম কিছু ভাবিনি। ভবিষ্যতে কী হবে জানি না। তবে ও আমার বিশেষ বন্ধু।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: