সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ বাংলাদেশ : অ্যামনেস্টি

19

দেশে নানা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে সম্প্রতি শারদীয় দুর্গাপূজার সময় । এ সময় পূজামণ্ডপে হামলা ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়া ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। এসব ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে আজ মঙ্গলবার এক বিবৃতি দিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। বাংলাদেশ সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে বলে বিবৃতিতে বলেছে অ্যামনেস্টি।

বিবৃতিতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ক্যাম্পেইনার সাদ হাম্মাদি বলেন, ‘হিন্দুদের সবচেয়ে বড় উৎসব চলাকালে তাদের ওপর, তাদের বাড়িঘর, মন্দির ও পূজামণ্ডপে বিক্ষুব্ধ জনতার হামলার খবর দেশে সংখ্যালঘু বিরোধী মনোভাবের পরিচয় প্রকাশ পেয়েছে। হিন্দুদের ওপর বারবার এ ধরনের হামলা, সাম্প্রদায়িক সহিংসতা এবং গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের ঘরবাড়ি এবং উপাসনালয় ধ্বংস করার মানে এই দাঁড়ায় যে রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় সংবেদনশীলতাকে লক্ষ্য করে উস্কানি ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করা একটি গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘন। দেশে সংখ্যালঘুদের এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারকে অবিলম্বে ব্যবস্থা নিতে হবে।’

সাদ হাম্মাদি বলেন, ‘আমরা সংখ্যালঘুদের ওপর এই ধরনের হামলার বিরুদ্ধে নিরাপত্তা ও ন্যায়বিচার এবং ভুক্তভোগীদের প্রতিকার নিশ্চিতে জরুরি ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। কর্তৃপক্ষকে অবিলম্বে, পুঙ্খানুপুঙ্খ, নিরপেক্ষ এবং স্বচ্ছভাবে ঘটনার তদন্ত করতে হবে এবং সহিংসতা ও ভাঙচুরের জন্য সন্দেহভাজনদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।’