Home / আদালত / সংগ্রাম সম্পাদকের হাইকোর্টে জামিন মেলেনি

সংগ্রাম সম্পাদকের হাইকোর্টে জামিন মেলেনি

হাইকোর্ট রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে করা একটি মামলায় কারান্তরীণ দৈনিক সংগ্রামের প্রকাশক ও সম্পাদক আবুল আসাদকে জামিন দেয়নি। আদালত খোলার পর তাকে নিয়মিত বেঞ্চে জামিন আবেদন করতে বলা হয়েছে।

বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান আইনজীবী মুহাম্মদ শিশির মনির। আদালতে আবুল আসাদের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন খন্দকার মাহবুব হোসেন। তাকে সহযোগিতা করেন শিশির মনির।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে অংশ নেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এর আগে গত ১১মে আবুল আসাদের পক্ষে শিশির মনির এ আবেদন করেন। ভার্চুয়াল বেঞ্চ গঠনের পর এটাই প্রথম জামিন আবেদন।

শিশির মনির জানান, আবুল আসাদের জামিনের জন্য চারটি যুক্তি তুলে ধরা হয়েছিল। ১. ৮০ বছর বয়স্ক একজন প্রবীণ নাগরিক। ২. শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন। ৩. তার ডান চোখের দৃষ্টিশক্তি ক্রমান্বয়ে হারিয়ে ফেলছেন। চিকিৎসকরা অতিসত্ত্বর তার ডান চোখে ক্যাটারেক্ট সার্জারির পরামর্শ দিয়েছেন। শ্বাসকষ্টের রোগী হওয়াতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ারও প্রবল ঝুঁকিতে রয়েছেন তিনি। কিন্তু দীর্ঘদিন আদালত বন্ধ থাকায় জামিন আবেদন করার সুযোগ পাচ্ছেন না। ৪. দৈনিক সংগ্রামে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া জামায়াত নেতা আব্দুল কাদের মোল্লাকে শহীদ লিখেছেন এটা আদালত অবমাননা হতে পারে, রাষ্ট্রদ্রোহ না।

২০১৯ সালের ১২ ডিসেম্বর দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে ১৯৭১ সালের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কাদের মোল্লাকে শহীদ হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনায় ১৩ ডিসেম্বর রাতে ঢাকা সিটি করপোরেশনের ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আফজাল সংগ্রাম পত্রিকার সম্পাদকসহ সাত-আটজনকে আসামি করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেন।

এর আগে ১৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সংগ্রামের কার্যালয় থেকে সম্পাদক আবুল আসাদকে হেফাজতে নেয় হাতিরঝিল থানা পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this:
Skip to toolbar