সংঘর্ষ নিয়ে দ্বিধায় ভারত অলআউট

6

ভারতের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিম চীনের তিব্বতের কাছে সিগাজে পাঁচ হাজার পাঁচশ’ বিরানব্বই ফুট উচ্চতায় চীনের একটি মিলিটারি পোস্ট। দু’হাজার কুড়ির জানুয়ারিতে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি যখন এই পোস্টটি নির্মাণ করে ভারত তার বিন্দু বিসর্গ টের পায়নি।  সিকিমের ওপর নজরদারি চালাতে যে এই উচ্চতায় এই পোস্ট তা বুঝতে নির্বোধেরও সময় লাগে না।  কিন্তু চীনের সেন্ট্রাল টেলিভিশন এই পোস্টের ছবি  প্রকাশ্যে আনার আগে কাকপক্ষীও টের পায়নি এই মিলিটারি পোস্ট সম্পর্কে। সেন্ট্রাল টেলিভিশন গত রোববার এই  পোস্টে দেখায় চীনা সেনারা বারবিকিউ করছে এবং ঝলসানো ভেড়ার মাংস খাচ্ছে। চীনা সেনাবাহিনীর এক ইন্সট্রাক্টর লি সিন জানান,  প্রথম যখন তারা এখানে এসেছিলেন তখন এখানে বড় বড় পাথরের টিলা ছাড়া কিছু ছিল না গালওয়ান ভ্যালির সেই রক্তক্ষয়ী দিনের আগে। আর এক সেনা সি গেটজি  সেন্ট্রাল টেলিভিশনকে জানান, হিমাঙ্কের নিচে কুড়ি ডিগ্রি তাপমাত্রার জায়গাটিকে তারা সহনশীল করে নিয়েছেন। এখন অসুবিধা হয় না। বিলক্ষণ অসুবিধা ভারতীয় পক্ষের। কারণ মাথার ওপর চীনা বাহিনীর নজরদারি।

কিন্তু, সার্বিক আক্রমণে তারা যেতে পারছে না কারণ চীনের আঞ্চলিক সুপ্রিমেসি তাদের বাধা দিচ্ছে। ভারতের থেকে চীনের অর্থনীতি পাঁচগুণ বড়। বৈভবের সুযোগ নিচ্ছে চীন। সামরিক শক্তিতে ভারত যথেষ্ট বলিয়ান হলেও না ছুঁই মাছ না ধরি পানি মার্কা বিদেশনীতি ভারতকে দুই কদম এগিয়েও এককদম পিছিয়ে দিচ্ছে।  এই অবস্থায় ভারতের নাকের ডগায় এই চীনা পোস্ট নিয়ে ভারতীয় বাহিনী বিপাকে।