Home / খবর / সব অনুষ্ঠান স্থগিত বৈসাবিসহ নববর্ষের

সব অনুষ্ঠান স্থগিত বৈসাবিসহ নববর্ষের

সরকার চীনের উহান শহর থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণসংহারী করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে আসন্ন পহেলা বৈশাখের সব ধরনের অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম স্থগিত করেছে। স্থগিত করা হয়েছে পার্বত্য অঞ্চলের বৈসাবি উৎসবের অনুষ্ঠানও।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান না করার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

বুধবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখা উপসচিব মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াদুদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে নববর্ষের সব অনুষ্ঠান স্থগিত করার বিষয়টি জানানো হয়।

আর দুই সপ্তাহ পরেই বাঙালি জাতির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। প্রতিবছর বাঙালিরা বেশ জাঁকজমকভাবে নববর্ষের দিনটি পালন করে। বর্ণিল উৎসবে মেতে ওঠে পুরো দেশ।

গানে গানে, আনন্দ আয়োজনে নতুন বছরটিকে বরণ করে নেয় দেশবাসী। ভোরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর আয়োজনে মেতে ওঠে পুরো বাঙালি জাতি।

কিন্তু এবার সেই আয়োজন করতে পারবে না বাঙালি। চীনের উহান শহর থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসের কারণে এবার নববর্ষের অনুষ্ঠান হচ্ছে না। ঝুঁকি এড়াতে গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নববর্ষের সব অনুষ্ঠান বন্ধের আহ্বান জানিয়েছিন। আজ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখা উপসচিব আব্দুল ওয়াদুদের সই করা চিঠিতে নববর্ষের সব অনুষ্ঠান স্থগিত করার বিষয়টি জানানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসজনিত রোগের বিস্তার রোধে জনসমাগম পরিহার করার লক্ষ্যে আসন্ন ১ বৈশাখ ১৪২৭ বা এ সময়ে সব ধরনের অনুষ্ঠান/কার্যক্রম (তিন পার্বত্য জেলার ‘বৈসাবি’সহ) স্থগিত করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this:
Skip to toolbar