সরকারি চাকরিজীবী গ্রেড ১১-২০ অধিকার ফোরাম ৮ দফা দাবিতে আন্দোলনে যাচ্ছে

42

সরকারি চাকরিজীবী গ্রেড ১১-২০ অধিকার ফোরাম সারাদেশে একযোগে কর্মবিরতি, গণস্বাক্ষর কর্মসূচী ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপিসহ ৮ দফা দাবিতে আন্দোলনে যাচ্ছে । আজ শুক্রবার দলের এক আলোচনা সভায় এই ঘোষণা দেন ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লুৎফর রহমান। তিনি বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু কন্যা, যে বঙ্গবন্ধু ঢাকা বিশ্ববিদলয়ের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের জন্য জেল খেটেছেন। তাই তার কন্যা শেখ হাসিনার কাছে তৃতীয় চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের অধিকার আদায় হবে বলেই বিশ্বাস করে এই সংগঠন। তিনি জোর দিয়ে বলেন, তাদের এই যৌক্তিক দাবি পূরণ করা না হলে সারা দেশের সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সঙ্গে নিয়ে নতুন কর্মসূচী দেয়া হবে।
রাজধানীর সেচ ভবনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু। তিনি বলেন, ১১ থেকে ২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের ৮ দফা দাবি যৌক্তিক। তাই এই দাবি বাস্তবায়নে একজন সংসদ সদস্য হিসেবে সংসদে তিনি ভূমিকা রাখবেন বলে ঘোষণা দেন।

বলেন এই দাবি আদায়ের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ জানানো হবে। নজরুল ইসলাম বাবু আরো বলেন, বাংলাদেশের সমস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানে যদি শতভাগ সেবা নিশ্চিত করতে হয় তাহলে তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের অধিকার সংরক্ষণ জরুরী। বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের সমস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানে সেবা নিশ্চিত করতে ১১ থেকে ২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের মূল্যায়ন করতে হবে। তাদেরকে অবমূল্যায়ন করে সরকারি প্রতিষ্ঠানের সেবা নিশ্চিত সম্ভব নয়। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে হলে সরকারি চাকরিজীবীদের বিশেষ করে ১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীদের গুরুত্ব সবার আগে বিবেচনা করতে হবে।