সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের আন্দোলন পরীক্ষা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে

105

সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের  চলমান ও আসন্ন সকল পরীক্ষা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের জন্য নীলক্ষেত মোড়ে আন্দোলন করছে । চলমান পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে ও ২০১৭-১৮ এবং ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তিন বিষয়ে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের বিশেষ পরীক্ষার মাধ্যমে পরবর্তী বর্ষে উত্তীর্ণ করার দাবিসহ হল খোলার দাবিতে এই আন্দোলন করছে সাত কলেজের অধিভুক্ত শিক্ষার্থীরা।

এ বিষয়ে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থী ইয়াছিন বলেন, সেশনজটে পড়ে এমনিতেই ৬ বছর চলে গেছে। এখন অধিভুক্ত কলেজ গুলোতে ২০১৯ সালের অনার্স চতুর্থ বর্ষ ও ২০১৯ সালের অনার্স তৃতীয় বর্ষ এবং ২০১৭ সালের মাস্টার্স শেষ পর্বের মৌখিক পরীক্ষা চলছে। এছাড়া কিছুদিন পরে  ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষ ও ১০ই মার্চ থেকে অনার্স ২য় বর্ষ (বিশেষ) পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এই মুহূর্তে পরীক্ষা স্থগিতের যেই আদেশ দিয়েছে তাতে করে আমাদের আরো বাড়তি সময় নষ্ট হবে। এটা কোন ভাবেই কাম্য নয়।

ইডেন কলেজের শিক্ষার্থী তন্নি আক্তার বলেন,২০১৭-১৮ এবং ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তিন বিষয়ে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের বিশেষ পরীক্ষার মাধ্যমে পরবর্তী বর্ষে উত্তীর্ণ করলে তাদের শিক্ষা জীবন থেকে তিনটি বছর নষ্ট হয়ে যাবে। এছাড়া তিনি অনতিবিলম্বে হল খোলার দাবিও জানান।

উল্লেখ্য, আজ মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (শিক্ষা)  ও সরকারি সাত কলেজের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামালের সভাপতিত্বে সাত কলেজের অধ্যক্ষদের সভায় সাত কলেজের পরীক্ষা স্থগিতের সিন্ধান্ত নেয়া হয়।

সভায় সংশ্লিষ্ট অনুষদের ডিন, সাত কলেজের অধ্যক্ষ ও পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।