সিএমপি কমিশনার – সূর্যাস্ত পর্যন্ত বাংলা নববর্ষ

20

is-1নগরবাসীর প্রতি সিএমপির নির্দেশেনা মেনেই ভোর ৬টা থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত বাংলা নববর্ষ উদাপন করতে  আহ্বান জানিয়েছেন সিএমপির নতুন কমিশনার ইকবাল বাহার। একই সাথে বাঙ্গালীর সার্বজনীন এই উৎসব নির্বিঘ্নে পালনে সার্বিক নিরাপত্তার আশ্বাসও দিয়েছেন নগর পুলিশের শীর্ষ এ কর্মকর্তা। সোমবার বিকেলে নিজ কার্যালয়ে সাথে একান্ত আলাপচারিতায় সিএমপি কমিশনার এসব কথা বলেন।

নতুন কমিশনার বলেন, ‘চট্টগ্রামবাসীকে আপনার মাধ্যমে নববর্ষের অগ্রীম শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের আনন্দ উৎসবে নির্বিঘ্নে সামিল হতে নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। তাদের নিরাপত্তার জন্য কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আনন্দের এই মাত্রায় যাতে কোনও বিঘ্ন না ঘটে সেদিকে সিএমপির নজর রয়েছে। মূল আয়োজনগুলোকে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তার পাশাপাশি পুরো নগরজুড়ে বিশেষ নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হবে। ইতোমধ্যে আমাদের গোয়েন্দাবাহিনী অন্য গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সাথে সমন্বয় করে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।’ ‘তবে নিরাপত্তার নামে যাতে কোনও ধরণের অনাকাঙ্কিত ঘটনা না ঘটে সেদিকে পুলিশ সদস্যদের প্রতি নির্দেশনা দেয়া আছে। এছাড়া পহেলা বৈশাখের দিন সিএমপির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারাসহ আমি নিজেই বিষয়টি মনিটরিং করব।

তবে সরকারি নির্দেশনা মেনেই উৎসবের সময় সীমা মানতে নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন ইকবাল বাহার। তিনি বলেন, ‘সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ ভোর ৬টা থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত নববর্ষের যাবতীয় অনুষ্ঠান শেষ করবেন।

এরপরও যদি কেউ উন্মুক্ত স্থানে কেউ আয়োজন চালিয়ে যেতে চায় তাহলে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে। আশা করব সার্বজনীন এরকম একটি অনুষ্ঠানে নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে নগরবাসীও আমাদের দায়িত্ব পালনে সহযোগিতা করবেন। তবে ছাদের ভেতর যদি কেউ নিজস্ব নিরাপত্তায় নববর্ষের অনুষ্ঠান সন্ধ্যার পরও উদযাপন করতে চায় তাহলে সেক্ষেত্রে আমরা বাধা দেব না।