হতাশ জেলেরা পদ্মায় ইলিশের আকাল

34

বুধবার মধ্যরাতে ইলিশ শিকারে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে ।জেলেরাও নেমে পড়েছেন জাল-নৌকা নিয়ে। কিন্তু পদ্মা নদীতে গতরাতে ইলিশ মেলেনি বললেই চলে।

অন্যদিকে নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ কেনার আশায় ঘাট এলাকাসহ বাজারে ভিড় করছেন ক্রেতারা। কিন্তু মাছ না পেয়ে তারাও হতাশ।

বৃহস্পতিবার ভোরে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ার মাছবাজারে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়।

এসময় কথা হয় জেলে আকরাম আলীর সঙ্গে। তিনি বলেন, পদ্মায় যত বেশি স্রোত থাকে, তত বেশি ইলিশ ধরা পড়ে। কিন্তু এবার দৌলতদিয়ার পদ্মায় স্রোত না থাকায় ইলিশ মাছ একেবারে নেই বললেই চলে। সারারাত জেগে থেকে মাত্র ৫ কেজি মাছ পেয়েছি।

এদিকে দৌলতদিয়া বাজারের আড়তে মাছ কিনতে আসা ইলিশ মাছ কিনতে আসা কয়েকজন বলেন, অভিযান শেষ হওয়ার পর ভেবেছিলাম দৌলতদিয়া মাছ বাজারে অনেক ইলিশ আমদানি হবে। কিন্তু বাজারে এসে দেখলাম, মাছ তেমন নেই। ক্রেতা অনেক। ফলে মাছের দামও আকাশছোঁয়া।

স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ী রাজেক আলী বলেন, দৌলতদিয়ার পদ্মায় প্রতি বছর যে পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়ে, এবার তার অর্ধেকও ধরা পড়ছে না। যে কারণে আমরা ব্যবসা করতে পারছি না।

ইলিশ কম আসায় ক্রেতারা যেমন হতাশ হচ্ছেন, তেমনি লোকসানের ঝুঁকিতে রয়েছেন ব্যবসায়ী-আড়তদাররাও।

মা ইলিশ রক্ষায় ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশ শিকার নিষিদ্ধ ছিল। গত কয়েক বছর ধরে ইলিশ মাছের প্রজনন নির্বিঘ্ন করতে এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে সরকার। এ সময় সরকারের পক্ষ থেকে জেলেদের বিভিন্নভাবে প্রণোদনা দেয়া হয়।