Home / আর্ন্তজাতিক / ২০১৮ সালের ছবি নিয়ে প্রশ্ন উহানের একটি ভাইরাস সংরক্ষনাগারের

২০১৮ সালের ছবি নিয়ে প্রশ্ন উহানের একটি ভাইরাস সংরক্ষনাগারের

উহানে চীনের সম্প্রতি ছবি ভাইরাল হয়ে গেছে একটি ভাইরাস সংরক্ষণাগারের । এতে দেখা গেছে, প্রায় ১৫০০ ধরণের মহামারির ভাইরাস রাখা একটি রেফ্রিজারেটরের সিল ভাঙ্গা রয়েছে। এই ভাইরাসগুলোর মধ্যে রয়েছে বাদুর থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসও। সম্প্রতি এমন ধরণের একটি ভাইরাসই বিশজুরে লাখ মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। হুমকির মুখে রয়েছে কোটি মানুষ।
এই ছবিটি প্রথম প্রকাশ করা হয় ২০১৮ সালে। প্রকাশ করে চীনেরই রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত পত্রিকা চায়না ডেইলি। গত মাসে আবারো এই ছবিটি টুইটারে পাবলিশ করে তারা।

এরপর আবার সেটি ডিলিটও করে দেয়া হয়। ওই ছবিতে দেখা যায় সংরক্ষনাগারের একটি রেফ্রিজারেটরের সিল সামান্য ভেঙ্গে গেছে। তবে এত ঝুকিপূর্ন ভাইরাস রাখা রেফ্রিজারেটরের এমন অবস্থা দেখে ডাক তুলেছে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলিও। তারা দাবি করছে, এমন ব্যবস্থা থেকে সহজেই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে মানবদেহে। চলমান কোভিড-১৯ মহামারিও হয়ত এমন কোনো লিক থেকেই ছড়িয়েছে। যদিও ছবিটি অনেক পুরোনো। টুইটারে একজন তাচ্ছিল্য করে কমেন্ট করেন যে, আমার বাসার ফ্রিজের সিলও এর থেকে বেশি শক্তিশালী।
চীনকে কাবু করতে এ ধরণের নানা ষড়যন্ত্র তত্ব ইতিমধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে পশ্চিমা বিশ্বেও। এমনকি ল্যাবরটরিতে ভাইরাস তৈরির মত অসম্ভব দাবিও করে বসছেন কেউ কেউ। এতে তাল দিচ্ছেন রাজনীতিবিদরাও। চীন যদিও একে দেখছে, মহামারিকে ব্যবহার করে রাজনীতির চেষ্টা হিসেবে। এরমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও দাবি তুলেছেন, চীনকে অবশ্যই করোনা ভাইরাসের বিষয়ে মুখ খুলতে হবে। তার দাবি এটি কোনো ল্যাব থেকে ছড়িয়ে পড়েছে কিনা সেটি নিশ্চিত করতে হবে চীনকে। যুক্তরাষ্ট্র এটি খুঁজে বের করতে সব চেষ্টা চালিয়ে যাবে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: