৩৫ বছর পর বাড়ি ফেরা

24

আব্দুল মুনাফ (৭০) বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির পারিবারিক যোগাযোগ পুনঃস্থাপন (আরএফএল) বিভাগ, সংগঠনটির খাগড়াছড়ি ব্রাঞ্চ ও মানিকছড়ি ইউনিটের সহযোগিতায় দীর্ঘ ৩৫ বছর পর পাকিস্তানের কারাগার থেকে বাড়িতে ফিরলো খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলা ৩নং যোগ্যছলা ইউনিয়নের ফকির টিলা এলাকার বাসিন্দা । তিনি ১৯৮৭ সালে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে রেখে কাজের উদ্দেশে পাড়ি জমান ভারতে। সেখান থেকে ১৯৮৮ সালে অবৈধ পন্থায় চলে যান পাকিস্তানের বৃহত্তম নগরী করাচি শহরে। এরপর আর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করতে পারেননি তিনি।

গত মঙ্গলবার সকালে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির পারিবারিক যোগাযোগ পুনঃস্থাপন (আরএফএল) বিভাগ ও সদর দপ্তরের সহযোগিতায় একটি ফ্লাইটে বাংলাদেশে ফেরেন আব্দুল মুনাফ। পরে সকল কার্যক্রম শেষ করে গতকাল বুধবার বিকেলে বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির জুনিয়র সহকারী পরিচালক এস এম জাহিদুর রহমান ও আরএফএল বিভাগের খাগড়াছড়ি সদস্য আল আমিন, মানিকছড়ি ইউনিটের যুব প্রধান থোয়াই অংপ্রু মারমা ও আবু জাফরসহ একটি প্রতিনিধি দল তাকে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে দেন। এসময় রেড ক্রিসেন্টের সংশ্লিষ্টরা জানান, সংগঠনের পারিবারিক যোগাযোগ পুনঃস্থাপন বিভাগের কারাবন্দি অনুসন্ধানে পাকিস্তানের একটি কারাগারে খোঁজ মেলে মানিকছড়ির আব্দুল মুনাফের।

পরে সংগঠনটির সদর দপ্তর, পাকিস্তান রেড ক্রিসেন্ট ও ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব দ্যা রেড ক্রস (আইসিআরসি)’র সহযোগিতায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণাালয়ের মাধ্যমে তাকে দেশে ফিরিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। দেশে ফিরে আব্দুল মুনাফ জানান, দীর্ঘ ৩৫ বছর আমি পাকিস্তানে অবস্থান করি এবং সেখানে প্রায় ১৭ বছর আমি বিভিন্ন কারণে কারাবরণ করি। কারাগারে থাকা অবস্থায় রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সহযোগিতায় আমি মুক্ত হয়ে দেশে ফিরতে পেরেছি।

আমার স্ত্রী ও দুই ছেলে-মেয়েকে কাছে পেয়েছি। আমি সংগঠনের সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এদিকে তার ফেরার খবরে আনন্দের বন্যা বইছে পরিবার ও স্বজনদের মনে। তাকে দেখতে বিকেল থেকে তার বাড়িতে ভিড় করছেন স্বজন ও উৎসুক এলাকাবাসী।