৪ জনের যাবজ্জীবন ধর্ষণ মামলায়

3

1461071013

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের একটি আদালত মা-মেয়েকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে।চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া উপজেলায় কেওচিয়া ইউনিয়নে  একই রায়ে প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে অর্থদ- দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) দুপুরে চট্টগ্রামের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-১ এর বিচারক রফিকুল ইসলাম এই রায় দেন।

দ-িত আসামীরা হলেন সাতকানিয়া উপজেলার কেওচিয়া ইউনিয়নের জসিম উদ্দিনের ভাড়াটিয়া কোরবান আলী,আব্দুর রহিম,রিদুয়ান রহমান ও রুবেল চৌধুরী।
একই রায়ে মাকসুদ হাসান নামে আরো এক আসামীকে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে গঠিত অভিযোগ শিশু আদালতে পাঠিয়েছেন ট্রাইবুনাল।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের প্রসিকিউটর এ্যাডভোকেট জেসমিন আক্তার সিটিজি নিউজকে জানান,সাতকানিয়া কেওচিয়ায় কোরবান আলী,আব্দুর রহিম,রিদুয়ান রহমান,রুবেল চৌধুরী ও মাকসুদ হাসান মিলে মা মেয়েকে পালাক্রমে গণধর্ষণ করেছিল।এর মধ্যে ৪ জনের বিচার হয়েছে।এর মধ্যে আরেক ধর্ষক মাকসুদ হাসানের বয়স মামলার রেকর্ডে ১৬ বছর থাকায় তাকে শিশু আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আদালত সুত্রে জানা গেছে,২০১৪ সালের ১৪ জুন রাত সাড়ে ১২টার দিকে একটি বাড়িতে পাচঁজন মিলে মা-মেয়েকে গণধর্ষণ করে।এই ঘটনায় মহিলাটি পরের দিন ১৫ জুন সাতকানিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ১২ ডিসেম্বর মামলাটি আদালতে অভিযোগপত্র গঠন করা হয়। অভিযোগপত্রে পুলিশ পাচঁজনকে আসামী করে।

২০১৫ সালের ৯ এপ্রিল আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গঠন করে ৪জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরুর আদেশ দেন।অপর আসামীকে শিশু আদালতে স্থানান্তর করেন ট্রাইব্যুনাল।

আদালত ৯/৩ ধারায় মা-মেয়েকে গণধর্ষনের অপরাধে ৪জনকে সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদ- ও প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

মোট ১২ জন সাক্ষীর মধ্যে ৭জনের সাক্ষী গ্রহণ শেষে এই রায় দেন আদালত। দ-িতদের মধ্যে কোরবান আলী,আব্দুর রহিম বর্তমানে জেলে আছে।রিদুয়ান রহমান ও রুবেল খান পলাতক রয়েছে।