Home / খবর / ৬০ শয্যার আরেকটি করোনা ইউনিট চমেক হাসপাতালে

৬০ শয্যার আরেকটি করোনা ইউনিট চমেক হাসপাতালে

বিশেষজ্ঞরা শীত মৌসুমে করোনা সংক্রমণের হার ফের আতঙ্ক ছড়াতে পারে বলে এরই মধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন। বিষয়টি আমলে নিয়ে করোনার ২য় ঢেউ মোকাবেলায় দেশের শীর্ষ পর্যায় থেকেও প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়ে রেখেছে। এর প্রেক্ষিতে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় আরো একটি ইউনিট প্রস্তুত করে তোলা হচ্ছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে। হাসপাতালের চার তলায় নাক-কান-গলা বিভাগটি ২য় করোনা ইউনিট হিসেবে প্রস্তুত করছে হাসপাতাল প্রশাসন। এরই মধ্যে বিভাগটিতে ৬০টি শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির। করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়লে এখানে (২য় ইউনিটে) চিকিৎসা দেয়া যাবে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, গত মে মাসে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় হাসপাতালের নিচ তলায় পুরনো জরুরি বিভাগের পাশে আলাদা করোনা ইউনিট চালু করে চমেক হাসপাতাল প্রশাসন। প্রথমে একশ শয্যায় করোনা রোগীদের সেবা দেয়া হলেও পরবর্তীতে শয্যা সংখ্যা বাড়িয়ে দেড়শ করা হয়। বর্তমানে সেখানে দেড়শ শয্যায় করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবা চলছে। সেন্ট্রাল অঙিজেন লাইন, আইসিইউ-এইচডিও ছাড়াও কিডনি জটিলতায় ভোগা করোনা রোগীদের জন্য আলাদা ভাবে ২টি ডায়ালাইসিস মেশিনও স্থাপন করা হয়েছে করোনা ইউনিটে।
করোনা রোগীর চাপ বাড়তে থাকলে প্রথম ইউনিটের দেড়শ শয্যার অতিরিক্ত আরো শয্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা করে হাসপাতাল প্রশাসন। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে হাসপাতালের চার তলায় নাক-কান-গলা বিভাগটিতে করোনার ২য় ইউনিট প্রস্তুতের কাজ শুরু করা হয়েছে জানিয়ে হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আফতাবুল ইসলাম আজাদীকে বলেন, প্রস্তুতির অংশ হিসেবে তখন সেখানে অঙিজেন লাইন দেয়া হয়। যদিও সংক্রমণের হার কমে যাওয়ায় নতুন ইউনিটটি আর ব্যবহারের প্রয়োজন পড়েনি। এখন যেহেতু শীতে সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কার কথা বলা হচ্ছে, তাই ২য় ইউনিটটাও আমরা প্রস্তুত করে রাখছি। যাতে প্রয়োজন হলেই সেখানে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: