৭ রোহিঙ্গা আটক ভাসানচর থেকে পালানোর সময়

6

 স্থানীয়রা নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে পালানোর সময় সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের এছহাক মুন্সিরহাট থেকে ৭ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে। পরে তাদের পুলিশের কাছে তুলে দেওয়া হয়। আজ বুধবার দুপুরে আটক রোহিঙ্গাদের আবার ভাসানচরে পাঠিয়েছে চরজব্বার থানার পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে তাদের আটক করে স্থানীয়রা। আটককৃতদের মধ্যে ৩ জন নারী, ১ জন পুরুষ ও ৩ জন শিশু রয়েছে। আটক রোহিঙ্গারা হলেন, ভাসানচর আশ্রয়কেন্দ্রের ৭৪ নাম্বর ক্লাস্টারের মোহাম্মদ ইসমাইল (১৯), একই ক্লাস্টারের পারভিন আক্তার (২৮), মর্জিনা আক্তার (১৮), আয়াস (১০), মর্জিনা খাতুন (৮), বেছানা পারভেজ (৬) ও স্ত্রী নূর বেগম (৩৯)।

স্থানীয়রা জানায়, গতকাল মঙ্গলবার ভাসানচর থেকে পালিয়ে কক্সবাজারে যাওয়ার উদ্দেশ্যে দালালের মাধ্যমে নৌকাযোগে বের হয়ে আসে সাত জন রোহিঙ্গা। পরে দালাল চক্র রাতে কৌশলে মোহাম্মদপুর ঘাটে এনে তাদের নামিয়ে দেয়। রাত ১টার দিকে তারা মোহাম্মদপুরের এছহাক মুন্সিরহাট বাজারে এসে ঘোরাঘুরি করলে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা নিজেদের রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করে। রোহিঙ্গা আটকের বিষয়টি থানায় জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবপ্রিয় দাশ বলেন, ‘ভাসানচর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে আটক রোহিঙ্গাদের আবার ভাসানচরে পাঠানো হয়েছে।’